তাপদাহে আমিরাতে মধ্যাহ্ন কর্মবিরতি আইন চালু
ছবি : আমিরাতে আগামী তিন মাস দুপুরে বাইরের কাজে নিষেধাজ্ঞা।- সংগৃহিত

সংযুক্ত আরব আমিরাতে আজ শনিবার (১৫ জুন) থেকে গ্রীষ্মকালীন মধ্যাহ্ন কর্মবিরতি আইন চালু হয়েছে। শ্রমিকদের জন্য অত্যাধিক তাপদাহের কারণে গ্রীষ্মকালীন মধ্যাহ্ন কর্মবিরতি চালু করেছে দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়। আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিন মাস এ আইন বলবৎ থাকবে।
 
মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়ের দেওয়া এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, এই তিন মাস স্থানীয় সময় দুপুর ১২টা ৩০ মিনিট থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত বাইরে কাজ করা যাবে না। বিশেষ করে নির্মাণ শ্রমিক ও অফিসের বাইরে কাজ করার ব্যাপারে এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।
 
এর ফলে আমিরাতের সাতটি প্রদেশ আবুধাবী, দুবাই, শারজাহ, আজমান, রাস আল খাইমা, ফুজিরা এবং উম্মে আল কুইনের সব জায়গায় দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে টানা আড়াই ঘন্টা খোলা জায়গায় অথবা প্রচন্ড সূর্যতাপের নিচে কোনো কোম্পানি বা ব্যক্তি বিশেষের কর্মসূচি বন্ধ হয়ে যাচ্ছে।

শ্রমিকদের স্বাস্থ্য রক্ষা ও প্রচন্ড গরম আর তাপদাহ থেকে নিরাপদে রাখতে এ মধ্যাহ্ন বিরতি আইন করা হয়েছে। এর ফলে খোলা জায়গায় প্রখর সূর্যতাপের নিচে ওই সময়ের মধ্যে সকল প্রকার (বিশেষ জরুরি কাজ ছাড়া) কাজ করা বন্ধ রাখতে হবে। আর ওই সময়ে তাদেরকে তাদের বাসস্থান বা শীতল ছায়াযুক্ত স্থানে অবস্থান করতে বলা হয়েছে।
 
তবে অত্যাবশ্যকীয় জরুরি কাজকর্ম যেগুলো না করলে জনগণের ক্ষতি হবে বা দেশের ক্ষতি হবে, এমন কাজকর্ম এই আইনের বাইরে রাখা হয়েছে। যেমন- দুর্যোগ, ক্ষতি বা দুর্ঘটনা প্রতিরোধের কাজ, লাইন কাটা, পানি সরবরাহ, স্যুয়ারেজ, বিদ্যুৎ, ট্রাফিক কমানো বা বাড়ানো, রোড ব্লক অথবা গ্যাস বা পেট্রোলিয়াম সরবরাহ লাইন ঠিক রাখার কাজ ইত্যাদি। 

গ্রীষ্মকালীন এই আইনের কারণে শ্রমিকদের কর্মঘণ্টা কমে এলেও পূর্ব নির্ধারিত মাসিক বেতন সম্পূর্ণ পরিশোধ করতে হবে। পাশাপাশি আইন ভঙ্গকারী বা অমান্যকারী ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান বা কোম্পানির বিরুদ্ধে বিভিন্ন পরিমাণের জরিমানাসহ নানা ধরনের শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে। এই আইন একবার অমান্যকারী ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে প্রতি শ্রমিকের কাজ করার জন্য পাঁচ হাজার দিরহাম থেকে পঞ্চাশ হাজার দিরহাম পর্যন্ত তাৎক্ষণিক জরিমানার কথা বলা হয়েছে।

চলতি জুন মাস থেকে দেশটিতে তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি থেকে ৫০ ডিগ্রি পর্যন্ত উঠা-নামা করছে। আমিরাতে জুলাই-আগস্ট দু’ মাস প্রচন্ড গরম থাকে। এই দু’ মাস স্কুল, কলেজসহ যাবতীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকে। 
অধিক তাপদাহের কারণে শ্রমিকদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি এড়াতে কর্মস্থলে গ্রীষ্মকালীন মধ্যাহ্ন বিরতি আইন চালু করা হয়।

এছাড়াও দেশটিতে বসবাসরত সকল নাগরিকদের স্বাস্থ্য ও যানবাহন চলাচলে সচেতনতায় বিশেষ নজর দিতেও পরামর্শ দিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। 

এই আইন কার্যকরের ফলে আরব আমিরাতে প্রবাসী বাংলাদেশি হাজার হাজার শ্রমিকসহ নানা দেশের প্রবাসী শ্রমিকদের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে। 

উল্লেখ্য, আমিরাতে বিভিন্ন পেশায় প্রায় সাত লাখ বাংলাদেশি শ্রমিক কর্মরত রয়েছে। এখানকার অধিকাংশ শ্রমবাজার বাংলাদেশি, ভারতীয়, পাকিস্তানি তথা এশীয়দের দখলে। 

মধ্যাহ্ন বিরতির এই আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকা এবং এই আইন মেনে চলার জন্য সরকার ইতোমধ্যে বিভিন্ন প্রচারমাধ্যমে বিজ্ঞাপন দিয়ে লেবার ক্যাম্পগুলোতে লিফলেট বিলি করেছে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চিঠি দিয়ে নানা নির্দেশনাও পাঠানো হয়েছে। প্রতি বছরের মতো এই বছরও আইনটি যথাযথভাবে কার্যকর ও তদারকির কাজে সকল ব্যবস্থা সম্পন্ন করা হয়েছে।

মাইগ্রেশননিউজবিডি.কম/সাদেক ##

 

share this news to friends