মৌলভীবাজারের বাবলিন মল্লিক যুক্তরাজ্যে এমপি প্রার্থী

গণতন্ত্রের মাতৃভূমিখ্যাত বৃটেনের রাজনীতিতে শুরু হয়েছে নানা নাটকীয়তা। সাম্প্রতিক সময়ে সবচেয়ে জটিল অবস্থায় রয়েছে। ২০১৬ সালে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে বেরিয়ে আসার ব্যাপারে গণভোটে যে সম্মতি পাওয়া গিয়েছিল, তা বাস্তবায়নে বিলম্বকে কেন্দ্র করে একদিকে যেমন ইইউ’র সঙ্গে ব্রিটেনের সম্পর্কে টানাপোড়েন শুরু হয়েছে অন্যদিকে ঠিক তেমনি ব্রিটেনের অভ্যন্তরীণ রাজনীতিতেও দেখা দিয়েছে জটিলতা। যার ফলে যে কোনো সময় সাধারন নির্বাচনের  ঘোষণা আসতে পারে।

তাই প্রতিটি রাজনৈতিক দল সমগ্র দেশ জুড়ে এমপি প্রার্থী চুড়ান্ত করা শুরু করেছে। এই ধারাবাহিকতায় যুক্তরাজ্যের কার্ডিফ সেন্ট্রাল আসন থেকে ড. বাবলিন মল্লিককে লিবারেল ডেমোক্রেট (লিবডেম) পার্টি সংসদ নির্বাচনের জন্য সম্ভাবনাময় মনোনয়ন দিয়েছে। অ্যাডামসডাউন, পেন্টউইন, পেনিল্যান, সানকয়েড, রোথ এবং ক্যাথেস নিয়ে কার্ডিফ সেন্ট্রাল আসন গঠিন। এই আসনেই এমপি পদে নির্বাচনে অংশ নিবেন তিনি।

বাবলিন মল্লিক মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার ৬নং একাটুনা ইউনিয়নের কচুয়া গ্রামের রাজনীতিবিদ ও কমিউনিটি লিডার মোহাম্মদ ফিরুজের মেয়ে। তিনি ছোট বেলায় বাবার সাথে কার্ডিফে যান। কার্ডিফে নব প্রজন্মের মেধাবী মুখ বাবলিন। দু’ ভাই এবং বোনের মাঝে তিনি সবার ছোট। তিনি বায়ো-ক্যামিসস্ট্রিতে মার্ষ্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেছেন। পরে কার্ডিফ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রিও অর্জন করেন।

বাবালিন কার্ডিফ এলাকায় বাংলাদেশি কমিউনিটির মাঝে ‘শেকড়’ নামে একটি বাংলা স্কুল প্রতিষ্ঠায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করা সহ দাতব্য সংগঠন ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে এবং কমিউনিটির উন্নয়নে  নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।

তিনি কার্ডিফ কাউন্টি কাউন্সিলের প্রথম বাঙালি ও মুসলিম মহিলা হিসেবে গত কাউন্সিল নির্বাচনে বিপুল ভোটে কার্ডিফ কাউন্টি কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন।

এই ধারাবাহিকতায় লিবারেল ডেমোক্রেট (লিবডেম) ড. বাবলিন মল্লিককে এমপি হিসেবে লড়াই করার জন্য যোগ্যতম মনে করেছে। তিনি এশিয়ান কমিউনিটির পক্ষ থেকে বড় ধরনের সাহায্য পেতে পারেন বলে আশা করা হচ্ছে।

বাবলিন মল্লিক বাঙালি কমিউনিটির সবার সহযোগিতা কামনা করে বলেন, ‘এবারকার নির্বাচন বৃটিশ রাজনীতির জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আর এই আসনটিতে লিবারাল ডেমোক্রেট একটি শক্তিশালী ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত। এই আসনে আমাদের দলের এমপি এসেম্বলি মেম্বার ও কাউন্সিলর হিসেবে অতীতে অনেকবার বিজয় লাভ করেছে। অতীতের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে আমরা এশিয়ান মুসলিম ও বাঙালি ভোটারদের মন জয় করতে পারলে বিজয় নিশ্চিত।’

এদিকে, কমিউনিটি সংগঠক ও রাজনীতিবিদ মোহাম্মদ মল্লিক মোসাদ্দিক তার স্ত্রী বাবলিন মল্লিকের জন্য সবার কাছে দোয়া ও সহযোগিতা চেয়েছেন।

মাইগ্রেশননিউজবিডি.কম/সাদেক ##

share this news to friends