ধরপাকড়ের মুখে সৌদি থেকে ফিরলেন আরো ১৩০ কর্মী
ছবি : ফাইল।

ধরপাকড়ের মুখে সৌদি আরব থেকে আরো ১৩০ জন কর্মী দেশে ফিরেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) রাত ১১টা ২০ মিনিটে সৌদি এয়ারলাইন্সের এসবি-৮০৪ ফ্লাইটে  ঢাকার হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন তারা। 

বিমানবন্দরের প্রবাসীকল্যাণ ডেস্কের একজন কর্মকর্তা এ তথ্য জানান। প্রবাসীকল্যাণ ডেস্কের সহযোগিতায় বেসরকারি ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রাম তাদের খাবারসহ জরুরি সহায়তা দেয়।

নাটোরের রবিউল করিম, বাগেরহাটের মেহেদি হাসানসহ সৌদি আরব থেকে ফেরত আসা কর্মীদের অভিযোগ, দেশটিতে বেশ কিছুদিন ধরে ধরপাকড়ের শিকার হচ্ছেন বাংলাদেশি শ্রমিকরা। সেই অভিযানে বাদ যাচ্ছে না বৈধ আকামা (কাজের অনুমতিপত্র) থাকা কর্মীরাও।

ফেরত অনেক কর্মীর অভিযোগ, তারা কর্মস্থল থেকে রুমে ফেরার পথে তাদের পুলিশ গ্রেফতার করেন। সে সময় নিয়োগকর্তাকে ফোন করা হলেও তারা দায়িত্ব নিচ্ছেন না। বরং আকামা থাকা সত্ত্বেও কর্মীদেরকে ডিপোর্টেশন ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। আবার দীর্ঘদিন অবৈধভাবে থাকার কারণেও অনেককে আটক করে ফেরত পাঠানো হচ্ছে। 

নাটরের রবিউল করিম বলেন, ‘আমার আকাম থাকা সত্ত্বেও ধরে ডিপার্টেশন ক্যাম্পে পাঠিয়ে দিয়েছে পুলিশ। পুলিশের ধরপাকড় অনেক বেড়েছে।’

চলতি বছর সৌদি আরব থেকে এভাবে অন্তত ১১ থেকে ১২ হাজার কর্মী দেশে ফিরেছেন বলে জানান ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রামের প্রধান শরিফুল হাসান জানান।

এদিকে চলতি বছরের নয় মাসে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে প্রায় ২৫ হাজার বাংলাদেশি কর্মী ফেরত এসেছেন। এর মধ্যে অর্ধেকই এসেছেন সৌদি আরব থেকে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, গন্তব্য দেশগুলোতে আইনী কঠোরতা এবং শ্রমিকদের অনিবন্ধিত হয়ে পড়ার কারণেই তাদের ধরে দেশে ফেরত পাঠানো হচ্ছে। এ নয় মাসে প্রায় এক হাজার নারীকর্মীও দেশে ফেরত এসেছেন।

মাইগ্রেশননিউজবিডি.কম/সাদেক ##

share this news to friends