যুদ্ধবিধ্বস্ত লিবিয়া থেকে দেশে ফিরেছেন ১৫২ বাংলাদেশি
ছবি : ফাইল।

যুদ্ধবিধ্বস্ত লিবিয়া থেকে দেশে ফিরেছেন ১৫২ বাংলাদেশি। গতকাল বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) একটি চার্টার ফ্লাইটে তারা  ঢাকার হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নামেন।

আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

বাংলাদেশ সরকার ও আইওএম-এর সমন্বিত সহায়তায় ১৫২ জন বাংলাদেশি লিবিয়া থেকে দেশে ফিরেছেন। লিবিয়া সংকট শুরু হয় ২০১১ সালে। যেটি গৃহযুদ্ধে রূপ নেয়। যা এখনো চলছে। আর অনেক বাংলাদেশি অভিবাসী জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেখানে আছেন। এ রকম বিপজ্জনক পরিবেশে অনেক বাংলাদেশি দেশে ফিরতে চাইছেন। এ প্রেক্ষাপটেই ১৫২ বাংলাদেশি স্বেচ্ছায় দেশে ফেরার সিদ্ধান্ত নেন।

জাতিসংঘ অধিভূক্ত সংস্থা আইওএম তাদের সহযোগিতা করে দেশে ফেরত আনার ব্যবস্থা করেছে। আইওএম এই অভিবাসীদের দেশে নিরাপদ ও সুষ্ঠুভাবে ফেরার জন্য প্লেন ভাড়াসহ সবধরনের সহযোগিতা দিয়েছে।

গতকাল দেশে ফেরার পর বিমানবন্দরে প্রত্যাবর্তনকারীদের স্বাস্থ্য সেবা, মনো-সামাজিক সহায়তা, খাদ্য এবং আগমন পরবর্তীকালে তথ্য দিয়েও সহায়তা করেছে আইওএম। এছাড়া প্রত্যেক প্রত্যাবর্তনকারীকে বিমানবন্দর থেকে বাড়ি যাওয়ার জন্য চার হাজার ৭শ’ টাকা করে দিয়েছে সংস্থাটি। একইসঙ্গে আইওএম তাদের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে সহযোগিতা করেছে।

ফেরত আসা প্রত্যেক বাংলাদেশি এদেশে যাতে ব্যবসা কিংবা অন্যকিছু করে সামাজে পুনর্বাসিত হতে পারেন এর জন্য ১৪০০ ইউরো (প্রায় এক লাখ ৩০ হাজার টাকা) দেওয়া হবে।

এ প্রসঙ্গে আইওএম বাংলাদেশের চিফ অব মিশন গিওরগি গিগাউরি বলেন, ‘এই অভিবাসীরা লিবিয়ায় বিপজ্জনক অবস্থায় ছিলেন। দেশে ফিরতে ব্যাকুল ছিলেন। আমরা তাদের স্বেচ্ছায় প্রত্যাবর্তন সমর্থন করেছি। তাদের সুরক্ষা এবং মর্যাদা নিশ্চিত করে বাংলাদেশে আসতে সহযোগিতা করেছি। আমরা মানবাধিকারের প্রতি সম্পূর্ণ সম্মান রেখে তাদের সামাজিক, মানবিক ও আর্থিক সহযোগিতা করছি।’

২০১৫ সাল থেকে এখন পর্যন্ত লিবিয়া থেকে ১৪৭৫ জন বাংলাদেশিকে দেশে ফিরে আসতে সহযোগিতা করেছে আইওএম। অন্যতম মূল কার্যক্রম হিসেবে প্রতিষ্ঠানটি প্রতিবছর হাজার হাজার অভিবাসীকে জরুরি সহায়তা দিয়ে থাকে।

মাইগ্রেশননিউজবিডি.কম/সাদেক ##

share this news to friends