আমিরাতে জনতা ব্যাংক : অর্ধশত কোটি টাকারও বেশি খেলাপি ঋণ
ছবি : জনতা ব্যাংকের আবুধাবি শাখা।- সংগৃহিত

সংযুক্ত আরব আমিরাতে রাষ্ট্রায়ত্ত জনতা ব্যাংকের চারটি শাখায় খেলাপি ঋণের পরিমাণ ২২ মিলিয়ন দিরহাম বা ৫০ কোটি টাকারও বেশিতে গিয়ে ঠেকেছে। 

ব্যাংক সূত্র বলছে, ২০১৫ থেকে ২০১৭ সালের মধ্যে দেওয়া ঋণের একটি বড় অংশ অনাদায়ী রয়ে গেছে, যার নেতিবাচক প্রভাব রেমিট্যান্স আয়ের ওপর পড়ছে। ২০১৫ সালের আগে আমিরাত জনতা ব্যাংকের খেলাপি ঋণের পরিমাণ ছিল মোট ঋণের ৬ শতাংশ।

ব্যাংকের আমিরাত অপারেশনের প্রধান নির্বাহী আমিরুল হাসান জানিয়েছেন, বর্তমানে আমিরাতে ব্যাংকের চার শাখার খেলাপী ঋণের পরিমাণ মোট ঋণের ১৬ শতাংশে দাঁড়িয়েছে।

তিনি বলেন, ‘খেলাপি ঋণের এই বোঝা ব্যাংক বহন করতে পারে না। তাই এটাকে সিঙ্গেল ডিজিটে নিয়ে আসতে হবে। এর ওপর রয়েছে ইউএই সেন্ট্রাল ব্যাংকের তীক্ষè নজরদারী। কর্তৃপক্ষ  আমিরাতে অপারেট করা ব্যাংকগুলোকে মানি লন্ডারিং কমপ্লায়েন্ট ব্যাংক হিসেবে দেখতে চায়। তাই খেলাপি ঋণসহ ব্যাংকিং খাতের সকল অনিয়মকে শৃংখলার মধ্যে ফিরিয়ে আনার চাপ রয়েছে। খেলাপি ঋণ আদায়ে প্রয়োজনে গ্রাহকের বিরূদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থাও নেয়া হবে।’

অভিযোগ রয়েছে, অতীতে অসাধু ঋণ গ্রহীতাদের কেউ কেউ রাজনৈতিক প্রভাবে কিংবা ব্যাংকের অসাধু কর্মকর্তাদের যোগসাজশে অসৎ উপায়ে ঋণ সুবিধা নিয়েছেন, যদিও ব্যাংকের বর্তমান প্রশাসন এ ব্যাপারে ‘জিরো টলারেন্ট’ বলে জানিয়েছেন আমিরুল হাসান।

সম্প্রতি আমিরাত সফরে আসা আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. আসাদুল ইসলাম আবুধাবিতে ব্যাংকের গ্রাহকদের এক সমাবেশে খেলাপি ঋণের ব্যাপারে অসন্তুষ্টি প্রকাশ করে বলেন, ‘ঋণ গ্রহীতাদের মধ্যে যারা নিয়মিত কিস্তি শোধ করেন, তাদের ইন্সেনটিভ দেওয়ার কথাও সরকারি বিবেচনায় আছে।’

আমিরাতের জনতা ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে, পাঁচ খাতে খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৬০ শতাংশে ঠেকেছে। এই খাতগুলো হলো- এক বছর মেয়াদী ক্যাশ ক্রেডিট, দু’ বছর মেয়াদী পারসোনাল লোন (বিজনেস), চার মাস মেয়াদী টেম্পো ওভারড্রাফট ও ইনল্যান্ড বিল পারচেজিং এবং পারসোনাল স্যালারিড লোন।

অন্যদিকে স্যাংশনড ওভার ড্রাফট (এসওডি) খাতে ঋণ খেলাপি হয়েছে ৪০ শতাংশ। এটি ঋণ গ্রহীতার ওয়েজ আর্নার্স বন্ডের বিপরীতে দেওযা ঋণ, যাতে কোনো ঝুঁকি নেই।

২০১৭ সালে এক হাজার ২২৫ কোটি টাকা এবং ২০১৮ সালে এক হাজার ২০০ কোটি টাকার সমপরিমাণ বৈদেশিক রেমিটেন্স দেশে গেছে আমিরাতের জনতা ব্যাংকের মাধ্যমে। বছরে জনতা ব্যাংক ইউএই বাংলাদেশ সরকারকে গড়ে ৫০ কোটি টাকা নিট মুনাফা দিচ্ছে।

মাইগ্রেশননিউজবিডি.কম/সাদেক ## 

share this news to friends